শিবগঞ্জে চাল আত্মসাতের অভিযোগে ডিলারশিপ বাতিল

শেয়ার করুন...

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল বিতরণে অনিয়ম, দুর্নীতি ও আত্মসাতের অভিযোগে মশিউর রহমান নামে এক ডিলারের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন আইনে (দুদক) মামলা করা হয়েছে। তাঁর ডিলারশিপও বাতিল করা হয়েছে। উপজেলার ময়দানহাটা ইউনিয়নের হতদরিদ্রদের জন্য ওই চাল বরাদ্দ ছিল।

শিবগঞ্জ উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কামাল উদ্দিন বাদী হয়ে গতকাল শুক্রবার রাতে শিবগঞ্জ থানায় এই মামলা করেন। ডিলার মশিউর রহমান ময়দানহাটা ইউনিয়ন পরিষদের আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান (ইউপি) এসএম রূপমের ভাই।

শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এবং খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির উপজেলা কমিটির সভাপতি আলমগীর কবির এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ময়দানহাটা ইউনিয়নের হতদরিদ্র মানুষের মাঝে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল বিতরণে ডিলার মশিউর রহমানের বিরুদ্ধে ওঠা অনিয়ম-দুর্নীতি এবং চাল আত্মসাতের অভিযোগ খতিয়ে দেখতে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোজাহেদুল ইসলামকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল।

তদন্তে ডিলারের নামে বরাদ্দ দেওয়া চালের মধ্যে প্রায় ৭০০ কেজি চাল বিতরণে দুর্নীতি এবং আত্মসাতের প্রমাণ মিলেছে। এ কারণে তাঁর ডিলারশিপ বাতিল করা হয়েছে এবং তাঁর বিরুদ্ধে দুদক আইনে মামলা করা হয়েছে।

জানা গেছে, ডিলার মশিউর রহমান বিতরণের জন্য খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির এপ্রিল মাসের বরাদ্দকৃত চাল উত্তোলন করেন। এ চাল ৩ এপ্রিল তিনি দাড়িদহ বাজারে বিতরণ করছিলেন। এ সময় উপকারভোগীর ভুয়া তালিকা তৈরী করে কয়েকবস্তা চাল কালোবাজারির উদ্দেশ্যে পাচারের চেষ্টা করলে ইউনিয়নের নারী ইউপি সদস্য শাহনাজ বেগম প্রশাসনে খবর দেন। এ ঘটনার জেরে উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তার উপস্থিতিতে হেনস্তার শিকার হন শাহনাজ বেগম।

এ ঘটনার সংবাদ সংগ্রহে গিয়ে অভিযুক্ত ডিলার মশিউর রহমান ও তাঁর লোকজনের হাতে লাঞ্ছিত হন বেশ কয়েকজন সাংবাদিক।


শেয়ার করুন...