কুড়িগ্রামে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে আটক ৩

শেয়ার করুন...

কুড়িগ্রামের উলিপুরে ক্রিকেট খেলার বল শরীরে লাগাকে কেন্দ্র করে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এছাড়া তাকে উদ্ধার করতে এসে স্ত্রী সন্তানকেও বেধড়ক মারপিট করে গুরুতর আহত করা হয় বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে সোমবার উলিপুর থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ ৩ জনকে আটক করে। ঘটনাটি ঘটে উলিপুর উপজেলার ধামশ্রেনী ইউনিয়নের যাদুপোদ্দার গ্রামে।

নিহতের স্বজন ও মামলার সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার বিকেলে ওই গ্রামের আনছার আলীর ছেলে মুকুল মিয়ার (৪২) সাথে প্রতিবেশী সাহাব উদ্দিনের ছেলে মিশন মিয়ার (২৮) ক্রিকেট খেলার বল শরীরে লাগার ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাকবিতন্ডা হয়। এরপর থেকে সাহাব উদ্দিনের পক্ষের লোকজন মুকুল মিয়াকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছিলেন।

এরই জের ধরে রবিবার বিকেলে উলিপুর বাজার থেকে মুকুল মিয়া বাড়ি ফেরার পথে সাহাব উদ্দিনের বাড়ির সামনে পৌঁছলে তার পক্ষের লোকজন দলবদ্ধ হয়ে মুকুল মিয়ার উপর হামলা করে। খবর পেয়ে তার স্ত্রী ও পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধারের জন্য এগিয়ে গেলে তাদেরকেও বেধড়ক মারপিট করে গুরুতর আহত করা হয়। পরে এলাকাবাসীরা আহতদের মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে রবিবার রাত দুইটার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মুকুল মিয়া মারা যান।

উলিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক ডাঃ মাঈদুল ইসলাম গুরুতর আহত অবস্থায় মুকুল মিয়ার মাথায় রক্ত ক্ষরণের কারনে মৃত্যু হয়েছে বলে জানান।

উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোয়াজ্জেম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহত মুকুল মিয়ার লাশ পোষ্টমর্টেম করার জন্য কুড়িগ্রাম প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও তিনি জানান।


শেয়ার করুন...