পদ্মা সেতুর রেল প্রকল্পের শ্রমিকদের ওপর হামলা

শেয়ার করুন...

দ্মা সেতুর রেল–সংযোগ প্রকল্পের শ্রমিকদের ওপর ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তাকর্মীরা হামলা চালিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে ৯ জন শ্রমিক আহত হয়েছেন।

ওভারটাইমের মজুরি ও বোনাসের দাবিতে বিক্ষোভ শুরু করলে তাঁদের ওপর হামলা চালানো হয়। গতকাল বুধবার রাত সাড়ে আটায় মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলার সিতারামপুর এলাকার রেলওয়ের প্রকল্প এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত শ্রমিকরা হলেন মো. শুভ (২২), মো. জাকির (২৫), মো. সুমন (২৭), মো. রাজু (২২), মো. পারভেজ (২২), মো. নাঈম (২৫), মো. রায়হান (২২), মো. রাসেল (২৫) ও মোহাম্মাদ আলী (৫০)। তাঁদের মধ্যে আহত প্রথম ছয়জনের শরীরে ছররা গুলি লেগেছে। বাকি তিনজনকে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে। তাঁদের শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক জানান, বুধবার রাতে ৯ জন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন। তাঁদের মধ্যে পাঁচজনের শরীরে স্প্রিন্টার বা ছররা গুলির চিহ্ন আছে। অন্যদের শরীরে লোহাজাতীয় কোনো কিছু দিয়ে পেটানোর আঘাত আছে। তবে তাঁদের কারও অবস্থা আশঙ্কাজনক নয়।

আহত কয়েকজন শ্রমিক বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণের আশঙ্কা থাকায় কাজের স্থান থেকে শ্রমিকদের বাইরের যাওয়ায় নিয়ম নেই। যত দিন পরিস্থিতি ঠিক না হয়, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজের প্রকল্প এলাকার ভেতর থেকেই কাজ করতে বলে।

এ জন্য প্রত্যেক শ্রমিককে থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থাসহ ৩০০ টাকা করে ওভারটাইম ও ঈদের বোনাস দেওয়ার কথা ছিল। এখানে প্রায় ৬৫০ থেকে ৭০০ শ্রমিক কাজ করেন। মাসের শুরুতে তাঁদের পাওনা বুঝিয়ে দেওয়ার কথা। তবে বুধবার শ্রমিকদের জানানো হয়, ওভারটাইম ৩০০ টাকার পরিবর্তে ১৫০ টাকা করে দেওয়া হবে।

বিষয়টি জানার পর তাঁরা কাজ বন্ধ রেখে সন্ধ্যার পর থেকে বিক্ষোভ করতে থাকেন। রাত সাড়ে আটটায়ও তাঁদের বিক্ষোভ চলছিল। একপর্যায়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তাকর্মীরা তাঁদের ওপর ছররা গুলি ছোড়েন। এতে ছয়জন শ্রমিক ছররা গুলিবিদ্ধ হন। অপর তিন শ্রমিককে বন্দুক ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করা হয়।

এ বিষয়ে লৌহজং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, ‘যতটুকু জানতে পেরেছি শ্রমিকদের ওভারটাইম মজুরি জনপ্রতি প্রতিদিন ৩০০ টাকা করে দেওয়ার কথা ছিল। তবে শ্রমিকদের ১৫০ টাকা করে দিতে চায় চায়নিজ ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। এতে শ্রমিকেরা জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেন। এ সময় সেখানকার নিরাপত্তাকর্মীরা শটগান দিয়ে ছররা গুলি চালালে ছয়জন ছররা গুলিতে বিদ্ধ হন।’

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শ্রীনগর সার্কেল) বলেন, শ্রমিকদের বিক্ষোভের কথা জানতে পেরে পুলিশ সেখানে যায়। এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। আহত শ্রমিকেরা রাতেই প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে তাঁদের কর্মস্থলে ফিরেছেন। এ ঘটনার তদন্ত হচ্ছে। মামলাও প্রক্রিয়াধীন আছে।


শেয়ার করুন...