ওএমএস’র কার্ড ভাগাভাগি নিয়ে আ’লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ

শেয়ার করুন...

করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য বিশেষ খাদ্য কর্মসূচী (ওএমএস) কার্ডের ভাগাভাগি নিয়ে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের মাঝে সংর্ঘষের ঘটনা ঘটেছে। এসময় আওয়ামী লীগের স্থানীয় কার্যালয়সহ কয়েকটি দোকান ভাঙচুর হয়।

হামলায় বাজার ব্যবসায়ীসহ উভয় গ্রুপের ১০/১২ জন আহত হয়েছে। বুধবার দুপুরে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের গোয়ালভাওড় বাজারে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

পিআইও অফিসসূত্রে জানা যায়, করোনার ভাইরাসজনিত লকডাউন পরিস্থিতিতে উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে ভুক্তভোগী লোকজনের জন্য বিশেষ রেশন কার্ডের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেই অনুযায়ী ফরিদগঞ্জ পৌরসভা ও ১৫টি ইউনিয়নে মোট ১১ হাজার ৩শ’ কার্ডের মাধ্যমে কার্ডপ্রতি ২০ কেজি করে চাল দেয়া হবে।

ইউনিয়ন সূত্রে জানা যায়, ইউনিয়নে বিশেষ রেশন কার্ডের ৭৪৬টি কার্ড বরাদ্দ হয়। গত মঙ্গলবার ইউনিয়ন পরিষদে সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ইউনিয়নে বরাদ্দকৃত কার্ডের মধ্যে ৪০ ভাগ ইউনিয়ন পরিষদের জন্য রেখে বাকী ৬০ ভাগের মধ্যে এমপির প্রতিনিধির ৩০ ভাগ, উপজেলা চেয়ারম্যান প্রতিনিধির ২০ ভাগ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ১০ ভাগ করে কার্ড বরাদ্দের সিদ্ধান্ত হয়।

ইউনিয়ন আ’লীগের ১০ ভাগ কার্ড নিয়ে দুই ইউপি সদস্য আলমগীর হোসেন বাবুল ও টেলু পাটওয়ারীর মধ্যে হাতাহাতি হয়। এরই জের ধরে বুধবার দুপুরে দুই গ্রুপ প্রস্তুতি নিয়ে গোয়ালভাড় বাজারস্থ ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেয়।

এক পর্যায়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে কথা কাটাকাটির জের ধরে হামলা পাল্টা হামলা শুরু হয়। হামলায় উভয় পক্ষ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাজারকে রনক্ষেত্রে পরিণত করে। এতে উভয় পক্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।

ফরিদগঞ্জ থানার ওসি আব্দুর রকিব জানান, সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে পুলিশের বেশ কয়েকটি ফোর্স সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।


শেয়ার করুন...